কিডনি, লিভার, মুখের ভিতরের ক্ষত সুস্থ রাখতে পাতে রাখুন এই শাক!

Spread the love

এই শাক সে ভাবে চাষ করা হয় না। গ্রাম-বাংলার মাঠে-ঘাটে, পুকুর পাড়ে পথের ধারের অযত্নেই গজিয়ে ওঠে এই শাক। আসুন এ বিষয়ে সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক…

এই শাক কোনও জমিতে আলাদা ভাবে চাষ করা হয় না। তবে গ্রাম-বাংলার মাঠে-ঘাটে, পুকুর পাড়ে পথের ধারের জমিতে অযত্নেই গজিয়ে ওঠে এই বথুয়া বা বেথো শাক। একটা সময় শুধু শীতকালেই পাওয়া যেত এই শাক। তবে আজকাল মোটামুটি সারা বছরই পাওয়া যায় বেথো শাক। এ শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ফসফরাস, জিংকের মতো গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। আসুন জেনে নেওয়া যাক বথুয়া বা বেথো শাকের অশ্চর্য কয়েকটি ওষধিগুণ…

১) গরম জল পড়ে ত্বকের কোনও অংশ পুড়ে গেলে বা ফোসকা পড়লে ওই অংশে বেথো শাক বেটে আলতো করে মাখিয়ে দিন। দেখবেন ত্বকের জ্বালা ভাব দ্রুত কমে যাবে।

২) মুখে ঘা হলে বেথো শাক চিবিয়ে খেতে পারলে বা হালকা করে রান্না করে খেলে ঘা চটজলদি সেরে যাবে।

৩) প্রস্রাবের সময় কি জ্বালা করে? তাহলে বেথো শাক বেটে তার সঙ্গে ২ চামচ জিরার গুঁড়ো, ২ চামচ পাতিলেবুর রস মিশিয়ে শরবত বানিয়ে খেয়ে দেখুন। দিনে অন্তত দু’বার এই শরবত খেতে পারলে এই সমস্যা কেটে যাবে।

৪) কিডনিতে পাথর হলে প্রতিদিন ১ কাপ বেথো শাক রস খেতে পারলে উপকার পাওয়া যায়।

৫) ত্বকে শ্বেতির মতো সমস্যা নিরাময়ে বেথো শাক অত্যন্ত কার্যকরী!

৬) পিত্ত, লিভারের সমস্যা বা মলাশয়ের সমস্যা দূর করতে বেথো শাক খুবই উপকারী।

 


Spread the love

Leave a Reply

error: Content is protected by Eshokajkori.com!!